ফেসবুকে ফেক আইডি চেনার উপায়

ফেসবুক ফেক আইডি চেনার উপায় এবং কিভাবে বন্ধ করা যায়

ফেসবুক বিশ্বের সবচেয়ে বড়ো  সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এই বিষয় আমরা আগেই জেনেছি। এখানে রোজের কয়েক মিলিয়ন মানুষ অনলাইন থাকে এবং তাদের মধ্যে অনেক ফেক আইডিও রয়েছে। তাই আজ আমরা জানবো ফেসবুক ফেক আইডি চেনার উপায়

ফেসবুকে এতো বেশি ফেক আইডি হওয়ার কারণে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ ও দুঃখ্য প্রকাশ করেন কারণ তার নামেই অনেক ফেক আইডি ফেসবুকে পাওয়া গেছে। এমন আপনার সাথেও হতে পারে কেউ আপনার বন্ধুর ফেক আইডি বানিয়ে প্রতারণা করতে পারে।

ফেক আইডির জাল এমন ভাবে বিছানো আছে সহজে কেউ বুঝতে পারে না এটা রিয়েল না ফেক। আপনার নজরে যদি এমন কোন আইডি থাকে যেটা রিয়েল না ফেক আপনি বুঝতে পারছেন না তবে নিচে তার সমাধান পেয়ে যাবেন।

ফেসবুক ফেক আইডি চেনার উপায়
কিভাবে ফেক আইডি বন্ধ করবেন

 

ফেসবুক ফেক আইডি চেনার উপায়

বেশির ভাগ ফেসবুকে ফেক আইডি মানুষকে বোকা বানানোর জন্য করে থাকে। তার কারণ অনেক হতে পারে আর এই ফেক আইডি বেশি মেয়েদের নামে করা হয় যাতে মানুষকে তাড়াতাড়ি আকর্ষণ করা যায়।
ফেসবুক ফেক আইডি চেনার উপায় দেখার জন্য কোন সফটওয়্যার নেই তবে কিছু জিনিস খেয়াল করলে সহজেই ফেক আইডি চিনতে পারবেন। 
 

নাম

সাধারণ আমরা সকলেই ফেসবুকে নিজের আসল নাম ব্যবহার করি। কিন্তু ফেসবুকে আপনি এমন আজগুবি নাম পাবেন যার কোন মানেই বুঝবেন না।

এমন কি আপনি যদি আজকের দিনে ফেসবুকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সার্চ করেন অনেক প্রোফাইল পেয়ে যাবেন এবার চিন্তা করুন। ফেসবুকে ফেক আইডি মেয়েদের নামে করা হলে এমন মায়াবী রাজকন্যা, নিশ্চুপ মন, মনের অন্তরালে এমন আজগুবি নাম হতে পারে।

প্রোফাইল ছবি

ফেসবুকে যারা ফেক আইডি বানাই তাড়া কখনোই নিজের ছবি দেইনা। বেশির ভাগ খেত্রে দেখা গেছে ফেক আইডিতে একটাই প্রোফাইল পিকচার রয়ছে।

এই প্রোফাইল ছবি কার জানতে হলে আপনি গুগল ইমেজের সাহায্য নিতে পারেন। এছাড়াও ফেক আইডিতে বেশির ভাগ অভিনেতা অভিনেত্রী দের ছবি ব্যবহার করা হয়।

টাইমলাইন

এদের টাইমলাইনে দেখবেন কোন কিছু প্রচার করা হতে পারে যেমন কোন ইউটিউব ভিডিও আথবা কোন ব্লগের পোস্ট শেয়ার করা হয় বেশি।

আথবা কোন রাজনীতি বিশয় বা কোন কিছু sale ও করতে পারে। মানে এমন আইডি শুধু কোন জিনিশের Promote করতে বানাই। অথবা কাউকে উদ্দেশ্য করে বানাই।

ফটো

বেশির ভাগ ফেক আইডিতে একটাই ছবি আপলোড করা হই প্রোফাইল পিকচার বানানোর জন্য। যদি দেখেন সেই প্রোফাইলে অনেক ছবি রয়ছে। তাহলে সব ছবি গুলো দেখুন আলাদা আলাদা মেয়েদের ফটো হতে পারে৷ অথবা একদিনেই সব ফটো আপলোড করা।

মেয়েদের ফটো বেশি আপলোড করার কারণ বেশি মানুষকে আকর্ষণ করতে করা হয়৷ কোন ফটোর বিষয় জানতে সেই ছবি গুগলে সার্চ করলে জানতে পারবেন।

জন্মতারিখ

ফেক আইডিতে আসল জন্মতারিখ থাকে না।  এদের জন্ম তারিখ খুব সহজ রাখা হয় যেমন ০১.০১.১৯৯০ বা ১২.১২.১৯৯২ বা ১০.১০.১৯৯০ এমন জন্মতারিখ রাখার কারণ যখন নতুন আইডি তৈরি করে তাড়াহুড়ায় যেটা ফেসবুকে দেওয়া থাকে সেটাই একসেপ্ট করে নেই অথবা আইডি নষ্ট হলে রিকভার করার জন্য।

অ্যাবট (About)

অরজিন্যাল আইডিতে সমস্ত তথ্য দিতে হয় যাতে আইডি নষ্ট না হয়। ফেক আইডি নষ্ট হলেও এদের কোন আফসোস হবে না।

ফেক আইডির About সম্পূর্ণ খালি পাবেন এরা About এ কিছু রাখে না। যদি কোন পেজ বা গ্রপকে এরা প্রমোট করতে চায় তবে শুধু সেই পেজ আর গ্রুপটাই অ্যাবটে দেখতে পাবেন।

কমেন্ট, রিপ্লাই বা ম্যাসেজ

ফেক আইডি হলে কোন দিনিই ম্যাসেজে রিপ্লাই পাবেন না। তখন রিপ্লাই পাবেন যখন তার প্রয়োজন হবে। আর এদের কোন পোস্ট বা ছবিতে দেখবেন বেশির ভাগ ছেলেদের কমেন্ট পাবেন তাইতে ফেক আইডি কোন রিপ্লাই করে না। যদি মেয়েদের ও কমেন্ট দেখেন তবে এটা আসল আইডি হতে পারে।

বন্ধুর তালিকা

ফেসবুকে আসল আইডি হলে তাদের বন্ধু অনেক কম হয় ২০০-৫০০ বা তারও কম। কিন্তু ফেক আইডির বন্ধুর তালিকায় ৪৫০০-৫০০০ হাজার পেয়ে যাবেন।

কারণ এরা কোন কিছু প্রমোট করতে আইডি তৈরি করেছে৷ এদের টার্গেট অনেক ফেসবুক বন্ধু একসাথে যুক্ত করা।

এক্টিভিটি

ফেক আইডি কখনোই সারাদিন অন থাকে না এরা নিদিষ্ট সময় হঠাৎ অন হয়ে কোন কিছু শেয়ার করে। আথবা Target Pershon কে মেসেজ করে আবার অফ হয়ে যায়।

আর ফেক আইডি কোন গ্রুপে বা পেজের সাথে যুক্ত থাকে না থাকলেও ২-১ টা গ্রুপে আর সেটা তারিই গ্রুপ। এই বিষয় জানতে সেই গ্রুপের এডমিন তালিকা দেখতে পারেন।

ইউজার নাম

ফেসবুকে ফেক আইডির ইউজার নামে আপনি তার আসল নাম পেয়ে যাবেন। কারণ ফেক আইডি নাম পরিবর্তন করার আগে পূর্বের ইউজার নাম পরিবর্তন করতে ভুলে যায়।

যেকোন আইডির ইউজার নাম দেখতে হলে ব্রাউজার দিয়ে আইডিটার প্রোফাইলে গিয়ে ওপর থেকে লিংকে ক্লিক করুণ।

আরও পড়ুন :  ফেসবুক Dark Mode করার নিয়ম

ফেক ফেসবুক আইডি বন্ধ করার উপায়

ওপরে আমরা জানলাম ফেসবুকে ফেক আইডি চেনার উপায়। আপনার নামে বা আপনার বোনের নামে ফেক আইডি বানিয়েছে তখন কিভাবে সেই ফেক ফেসবুক আইডি নষ্ট বা বন্ধ করবেন।

ধাপ ১. প্রথমে ফেক প্রোফাইলে যান আর 3 dot এ ক্লিক করুন।

ধাপ ২. Find support or report profile ক্লিক করুন।

ধাপ ৩. এখানে অনেক অপশন পাবেন ।

  1. প্রথমে pretending to Be Someone সিলেক্ট করুন ।
  2. এবার নিছে থেকে A Friend সিলেক্ট করে
  3. পরবত্রি ধাপে জাওয়ার জন্ন Next বটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৪. এখানে একটা Search box পাবেন । আপনার বন্ধুর নাম এখানে লিখে তাকে সিলেক্ট করুন।

ধাপ ৫. আপনার কাজ শেষ ২৪ ঘন্টা পর আপনার Support Inbox নিচের মতন এ এসএমএস পাবেন আইডিটি বন্ধ হয়ে গেছে অথবা রিভিউ চলছে।

কিছু কথা
বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম ফেসবুকে ফেক আইডি চেনার উপায় এবং কিভাবে ফেক ফেসবুক আইডি বন্ধ করা যায়
পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। আর এমনি সোশ্যাল মিডিয়া বিষয় কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্টে জানাবেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *